সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় বশেমুরবিপ্রবি ভিসির উপস্থিতিতে মানববন্ধন 

 নিউজ ডেস্ক
আপডেট: ২০২১-১২-২৮ , ০৭:৩৫ পিএম

সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় বশেমুরবিপ্রবি ভিসির উপস্থিতিতে মানববন্ধন 

শারমিন আক্তার, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ
সড়ক দুর্ঘটনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রাইসুল ইসলাম শুভ'র অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে দোষী ড্রাইভার, হেলপার এবং পরিবহন মালিকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন ভিসি অধ্যাপক ড. একিউএম মাহবুব। 

আজ মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুর দেড়টা থেকে দুইটা পর্যন্ত ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ঘোনাপাড়া অবরোধ করে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক, সিএসই বিভাগের শিক্ষকসহ সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময়, শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

শিক্ষার্থীরা বলেন, আমরা আর কোনো মানববন্ধন চায় না। এটাই শেষ মানববন্ধন হোক। আর কোনো সহপাঠী, ভাই-বোন, শিক্ষকের রাজপথে মৃত্যু চায় না। শুভ'র মৃত্যুর সাথে জড়িত ড্রাইভার, হেলপার এবং পরিবহন মালিকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চায়। সেই সাথে নিহত দুইজনের পরিবারকে এক কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ ও দাবি করেন তারা।

ভিসি অধ্যাপক ড. একিউএম মাহবুব বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিক। তাদের দাবির সাথে আমি একাত্মতা প্রকাশ করছি। আমরা আর কোনো প্রাণহানি চায় না। এ বিষয়ে আজ বসবো। শুভ'র নিয়ে তার পরিবারের যে শুভ প্রত্যাশা ছিলো তা আজ ধূলিস্যাৎ হয়ে গেছে। শুভ'র পরিবারের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য আমরা জোর দাবি জানাবো। 

এছাড়াও, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তিনি শিক্ষার্থীদের সাথে আন্দোলনে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন।

উল্লেখ্য, গতকাল (২৭ ডিসেম্বর) সাড়ে এগারোটার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে গোপালগঞ্জ টিএসসির সামনে দোলা পরিবহনের একটি বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় শুভ। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান শুভকে বহনকারী ভ্যানের চালক। 

শারমিন আক্তার
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ।